Header Ads

পিসি/মেমোরি কার্ড/পেন্ড্রাইভ থেকে ডিলিট হয়ে যাওয়া প্রয়োজনীয় ফাইল গুলো রিকোভার করবেন যেভাবে । how to recover deleted files

আমরা অনেক সময়ই ভুল করে আমাদের প্রয়োজনীয় কিছু ফাইল ডিলিট করে ফেলি।আবার অনেক সময় এমনও হয় যে আমরা ভেবে থাকি এই ফাইলটার আর দরকার নেই তখন ইচ্ছাকৃতভাবেই ঐ ফাইলটা ডিলিট করে দিই কিন্তু তার পরে হুট করে একদিন ঐ ফাইলটারই খুব দরকার পড়ে যায়।তখন আমরা কপাল চাপড়াতে থাকি।একটা সময় ছিলো যখন এই ফাইল গুলো আবার রিকোভার করা বা ফিরে পাবার খুব সহজ কোন সমাধান ছিলো না কিন্তু প্রযুক্তির বিকাশের সাথে সাথে এখন এসব বিষয় গুলোও ফিক্স করা সম্ভব হয়েছে।
আজকে আমি এমনই একটা সফটওয়্যারের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো যার সাহায্যে আপনারা আপনাদের প্রয়োজনীয় ফাইল যেগুলো ডিলিট হয়ে গিয়েছিলো তা খুব সহজেই ফিরিয়ে আনতে পারেন।গুগোলে খুজে দেখলে অনেক টিউটোরিয়াল পাওয়া যায় ডিলিট হয়ে যাওয়া ফাইল ফিরে পেতে।কিন্তু এগুলোর বেশীরভাগটায় ফেক।তাই ওই সব সফটোয়্যার গুলো থেকে দূরে থাকুন।
এই সফটওয়ারটির নাম হল রিকুভা (recuva). এটি পিরিফর্ম লিমিটেড এর তৈরী একটি অতি জনপ্রিয় সফটওয়্যার।

আপনারা যারা পিসি ব্যবহার করেন তারা যানেন শুধুমাত্র পিরিফর্ম লিমিটেডই স্পেকি(speccy) বা ডিফ্র্যাগ্লারের (Defraggler) এর মত খুবই দরকারি কয়েকটা ওয়ার্কিং সফটোয়্যার ফ্রীতে দিয়ে থাকে।
যাদের পিসি নেই তারা হয়ত একটু সমস্যাই পড়েছেন যেহেতু এই সফটোয়্যারটা ব্যবহার করতে পিসি লাগবে।কিন্তু চিন্তার কিছু নেই আপনার পিসি না থাকলেও আপনার কোন কাছের আত্নীয় অথবা আপনার বন্ধুর অবশ্যই পিসি আছে।এক্ষেত্রে বিষয়টা তাদের সাথে শেয়ার করে একসাথে সমাধান করে ফেলতে পারেন।
এই সফটোয়্যারটা ব্যবহার করে আপনি আপনার হার্ডডিস্ক,এসএসডি,মেমোরি কার্ড এবং পেন্ড্রাইভ হতে ডিলিট হয়ে যাওয়া ফটো,ভিডিও থেকে শুরু করে প্রায় সব রকম ডকোমেন্টস ফিরে পেতে পারেন।

যেভাবে রিকোভার করবেন
১.শুরুতেই এই লিঙ্ক থেকে সফটোয়্যারটা ডাউনলোড করে নিন।
২.আপনি যদি আপনার মেমোরি কার্ড অথবা পেন্ড্রাইভের ডিলিট হওয়া ফাইল রিকোভার করতে চান তাহলে আপনার পেন্ড্রাইভটি অথবা মেমোরি কার্ডটি ইউএসবি পোর্টে ইন করুন।



যদি আপনার হার্ডডিস্ক বা এসএসডি থেকে রিকোভার করেন তাহলে পেন্ড্রাইভ বা মেমোরি কার্ডটি ইউএসবি পোর্টে ইন করতে হবেনা।
৩.এবার সফটোয়্যারটা রান করুন।
৪.
রান অপশনে ক্লিক করার পর এরকম দেখাবে।
৫.
এর পরে রান রিকুভাতে ক্লিক করুন
৬.
নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন
৭.
নেক্সট বাটনে ক্লিক করার পরে এরকম উইন্ডো ওপেন হবে
৮.

এখান থেকে সেলেক্ট করুন আপনি কোন টাইপের ফাইল রিকোভার করতে চান।আমি পিকচার রিকোভার করব তাই পিকচার সেলেক্ট করেছি।সেলেক্ট করবার পরে নেক্সট ক্লিক করুন।
৯.
এখান থেকে সেলেক্ট করুন আপনি যে জায়গা থেকে ফাইলটা রিকোভার করতে চান।পেন্ড্রাইভ বা মেমোরি কার্ড হতে রিকোভার করতে চাইলে লাল অ্যারোতে দেখানো জায়গায় ক্লিক করে রিমুভেবল ডিভাইসটি সেলেক্ট করে দিন।তারপরে আবারো নেক্সট অপশনে ক্লিক করুন।
১০.
এখানে দুইটা অপশন আছে।Enable Deep Scan এ ক্লিক করে দিলে অনেক সময় নিয়ে স্ক্যান হবে এবং যে টাইপের ফাইল খুজতে চাচ্ছেন,এ যাবত যতগুলো ঐটইপের ফাইল ডিলিট করা হয়েছে সব রিকোভার করা যাবে।আর Enable Deep Scan এ ক্লিক না করে শুধু Start বাটনে ক্লিক করলে খুব ভালো ভাবে স্ক্যান হবেনা,কম সময় নিয়ে স্ক্যান হবে এবং অল্প কিছু ফাইল রিকোভার হবে যার ভেতরে আপনি যে ফাইলটি খুজছেন তা নাও  থাকতে পারে।তাই ভালো ফলাফলের জন্য Enable Deep Scan অপশনটিতে টিক দিয়ে Start বাটনে ক্লিক করুন।
১১.
এর পরে এরকম ভাবে স্ক্যান শুরু হবে।একটু সময় নিবে তাই ধৈর্য্য ধরে অপেক্ষা করুন।
১২.
স্ক্যান সম্পূর্ণ হলে এরকম একটা উইন্ডো ওপেন হবে যেখানে আপনি ডিলেট হয়ে যাওয়া যে টাইপের ফাইলগুলো খুজছিলেন সেগুলো দেখতে পাবেন(আমি এখানে পিকচার খুজছিলাম তাই পিকচার দেখাচ্ছে)।যে ফাইলটি রিকোভার করতে চান সেখানে মাউস পয়েন্টারটি রেখে রাইট বাটনে ক্লিক করলে রিকোভার অপশন পাবেন।এর পর লেফট বাটনে ক্লিক করলে ঐ ফাইলটি রিকোভার হয়ে যাবে(কোন ড্রাইভ সেলেক্ট না করলে সি ড্রাইভে রিকোভার হয়ে সেভ হবে।
 এভাবে ডিলিট হয়ে যাওয়া ফাইল গুলো সহজেই রিকোভার করতে পারবেন।কোন সমস্যা ফেস করলে কমেন্টে জানান।
আপনার পিসির কন্ডিশন ভালো রাখতে সিক্লিনার(Ccleaner) সফটোয়্যারটি ব্যবহার করে নিয়মিত হার্ডডিস্কের ক্যাশ ক্লিন করুন।এতে পিসি ভারী হবেনা।
পিসির টেম্পারেচার বুঝতে স্পেকি (Speccy) ব্যবহার করুন।এতে হার্ডড্রাইভ,মেইনবোর্ড,প্রসেসর এবং অন্যান্য কম্পোনেন্ট গুলো ওভার হিট হচ্ছে কিনা বুঝতে পারবেন এবং বেশী হিট হলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারবেন।
কোন থার্ড পার্টি অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার না করায় ভালো। উইন্ডোজ ডিফেন্ডার এবং আপনার অপারেটিং সিস্টেমটি নিয়মিত আপডেট করুন এতে ভায়রাস নিয়ে কোন সমস্যাই পড়তে হবেনা।
পোস্টটি ভালো লাগলে বসন্ত ডট নেটের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পরবর্তী আপডেট পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

No comments

Powered by Blogger.